আজ - বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪
Bangla Edition

আবারও ভারত পাকিস্তান দ্বৈরথের সাক্ষী হতে চলেছে বিশ্ব।


লেখক: আসাদুল্লাহ্‌ আল গালিব
প্রকাশিত হয়েছে: ০২ সেপ্টেম্বর ২০২৩

ভারত পাকিস্তান ম্যাচ মানেই ক্রিকেট পাড়ায় আলোচনা-সমালোচনার ঝড়। খেলা শুরু কয়েক দিন আগে থেকেই চলে ভারত পাকিস্তানের এই দ্বৈরথ। একজন অপর জনকে ছোট করতে কতই না বাক বিতণ্ডায় জড়ায় দুই দলের সাবেক ক্রিকেটার এবং দুই দেশের লোকজন।


আবারও ভারত পাকিস্তান দ্বৈরথের সাক্ষী হতে চলেছে বিশ্ব | Image Source: Cricket Addictor

পাকিস্তান যখন এশিয়া কাপ আয়োজনের প্রস্তুতি নিচ্ছিল, তখন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট জয় সাহা জানান পাকিস্তানে খেলতে যাবে না ভারত। অন্যদিকে সৌরভ গাঙ্গুলী বলেছিলেন, "ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে আর কোন উত্তেজনাই অবশিষ্ট নেই। কারণ ভারত পাকিস্তানকে এখন সহজেই হারায়।"

সৌরভ গাঙ্গুলীর এমন কথাকে ভালোভাবে নেননি পাকিস্তানি সাবেক ক্রিকেটার আব্দুর রাজ্জাক। "ভারত পাকিস্তানের সাথে খেলে না, কারণ তারা জানে, তারা হারবে, সাম্প্রতিক সময়ের কথা শুধু যে তাই নয়! ১৯৮৭-৯৮ সালের দিকেও পাকিস্তানের কাছে হাড়ের ভয়ে খেলতে চাইতো না ভারত।" -আব্দুর রাজ্জাক

এই কথার লড়াই নতুন না, বরং এই লড়াই দিয়েছে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচকে হাই-ভোল্টেজ ম্যাচের তকমা। প্রায় দশ মাস পর কাল মাঠে নামবে দুই দল। শিরোপার বিচারে এশিয়া কাপের সব থেকে সফল দল ভারত। ভারতের ৭ টি ট্রফির বিপরীতে পাকিস্তান পেয়েছে মাত্র ২ টি ট্রফি। পাকিস্তানের এশিয়া কাপে হেড টু হেডের ব্যবধানটা একটু কম। এই পর্যন্ত দুই দল মুখোমুখি হয়েছে ১৩ বার এর মধ্যে ৭ বার জিতেছে ভারত, পাকিস্তানের জয় পাঁচটিতে। শ্রীলঙ্কার মাটিতে খেলা তিনটি হেড টু হেড ম্যাচে ভারত পাকিস্তানের জয় একটি করে।

দুই দলের বর্তমান খেলোয়াড়দের মধ্যে সবথেকে বেশি রানের মালিক রোহিত শর্মা। হবেই না কেন? সেই ২০০৮ সাল থেকে খেলছে। ২২ ম্যাচে ৭৪৫ রান, মাত্র এক সেঞ্চুরির বিপরীতে ৬ টি ফিফটি করেছেন রহিত শর্মা, গড় ৪৬.৫৬।

অন্য দিকে ২০১৮ সালের এশিয়া কাপ অভিষেক টুর্নামেন্টে এক আসরে ৩৫১ রান করে আলোড়ন ছড়িয়ে ছিল বাবর আজম। এবার ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিং এক নম্বরে থেকেই এশিয়া কাপ খেলতে নেমেছে পাকিস্তান। নেপালের বিপক্ষে বড় জয়ের মাধ্যমে শুরু হয়েছে দুর্দান্ত।

ওদের পেস ইউনিটে শাহিনশা আফ্রীদি, নাসিম শাহ, হারিস রউফ প্রতিপক্ষের জন্য ভয়ংকর হয়ে উঠতে পারে যখন তখন। আর ব্যাটিংয়ে বাবর এর সাথে মোঃ রেজওয়ান, ফখর জামান, ইমাম উল হক গড়েছেন সলিড টপ অর্ডার।

অন্যদিকে, কে. এল. রাহুলের অনুপস্থিতিতে চার নম্বর পজিশন নিয়ে দুশ্চিন্তায় ভারত। এক্ষেত্রে ব্যাটিং অর্ডারেও পরিবর্তন আনতে পারে টিম ইন্ডিয়া। ঈশান কিষানকে যদি ওপেনিং-এ নামানো হয় তাহলে তিন নম্বর পজিশনে খেলতে পারে শুভমন গিল। সেক্ষেত্রে বিরাট কোহলি নেমে যেতে পারে চার নাম্বার পজিশনে।

ঘড়ির কাঁটায় সময় কম প্রস্তুতির পালাও শেষ এখন, মাঠের খেলায় ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের উন্মাদনা‌য় মেতে উঠবে ক্রিকেট ভক্তরা এমনটাই আশা করছে সবাই।

ট্যাগ

এশিয়া কাপ

এই সম্পর্কিত আরও পড়ুন


মন্তব্য